দয়া নিয়ে বিশেষ উক্তি পর্ব- 2 (ফিরেএসো) - ফিরে এসো

দয়া নিয়ে বিশেষ উক্তি পর্ব- 2 (ফিরেএসো)

দয়া নিয়ে বিশেষ উক্তি 

বিশ্বস্ত বন্ধুরা অমূল্য রত্ন। জীবনের সবচেয়ে কঠিন ও বিপদের মুহূর্তে তারা আপনার পাশে থাকে। আপনি তাদের নিকট সর্বদা ঋণী।

বিপদে না পড়লে এবং মন্দ পরিস্থিতির মুখোমুখি না হলে, আপনি কখনো সত্যিকারের বন্ধুকে চিনতে পারেন। ঐ মানুষ হন, যে অন্যকে টেনে তুলে এবং ঘোরতর বিপদের সময় সাহায্যের হাত বাড়ায়।

কেউই বলেনি, জীবন সহজ। জীবন কখনো বেশ নিষ্ঠুর হয়ে উঠে। তাই কঠিন বিপদের সময় যারা পাশে দাঁড়ায়, তাদের প্রতি হৃদয়ে ভালোবাসা সযত্নে লালন করুন। যারা বিপদে পালায়, তাদেরকে ক্ষমা করুন। 

কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হলে, আপনাকে অনেকেই ফেলে চলে আসবে। এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু যাদেরকে বন্ধু ভাবি, তাদের নীরবতা ও বেঈমানি আমাদেরকে সবচেয়ে বেশি আহত করে।

মনে রাখবেন, বেলা শেষে, আপনি এবং সর্বশক্তিমান (আল্লাহর) মাঝেই সম্পর্ক  বজায় থাকে। বাস্তবতা হচ্ছে: কেবল আল্লাহই সত্যিকার অর্থে আপনার দেখাশুনা করেন। তাই আল্লাহর মাঝেই নিজেকে সীমাবদ্ধ রাখুন।

কারোর সাথে যদি বসবাস না করেন, তাদের সাথে যদি লেনদেন না করেন, কিংবা তাদের সাথে যদি ভ্রমণ না করে থাকেন, তবে আপনি এই দাবি করতে পারেন না, তাদেরকে আপনি ভালো মতো জানেন।

যারা আপনার দূর্বলতা জানা সত্ত্বেও আপার সবল দিকের উপর গুরুত্ব দেয়, যারা আপনার ভয়ের দিকগুলো জানা সত্ত্বেও আপনার আত্নবিশ্বাসকে যাগিয়ে রাখে, তবে ঐরুপ  ইদিবাচক আত্নার মানুষকে রত্ন হিসেবে নিজের  সাথে রেখে দিন।

আপনি যেসব মানুষের সাথে উঠাবসা করেন, তারা আপনার জীবনে ব্যাপক প্রভাব রাখে। তাই উপযুক্ত মানুষের সাথে উঠাবসা করুন। তাদেরকে হিকমতের সাথে বাছাই করুন।

কারো সাথে ওয়াদা করলে, সেটা বজায় রাখুন। কিন্তু অপরের কাছ থেকে এটার প্রত্যাশা করবেন না। মানুষের সাথে ভালো আচরণ করুন, কিন্তু তাদের থেকে একই আচরণ প্রত্যাশা করবেন না । এটা বুঝে নিন এবং এতে করে আপনি অযথা ঝামেলা জড়াবেন না। 

আপনার প্রতিবেশি বা বন্ধুর কি আছে, তা নিয়ে মাথা ঘামাবেন না। আপনার অনুগ্রহ আপনার নিজের। আপনার জিনিসের উপর আল্লাহ আপনার নামই লিখে রেখেছেন। কেউ সেটা আপনার কাছে থেকে ছিনিয়ে নিতে সক্ষম হবে না। 

আমাদের সমস্যা হচ্ছে, আমরা অন্যের দুঃখ ও কষ্ট অনুভব করি না । আমরা নিজেদেরকে নিয়েই মোহাচ্ছন্ন হয়ে আছি। নিজেদের মাঝে তাই পুনরায় সহানুভুতি ফিরিয়ে আনুন।

ঐসব লোক থেকে সাবধান হন, যারা পিছন থেকে আপনাকে বারবার আঘাত করে এবং পরে এমন ভান করে যে, তাদের সাথে আপনি খারাপ আচরণ করেছেন। তাদেরকে উপেক্ষা করাটাই সর্বোত্তম।

আপনাকে বিশ্বাস করে কেউ যদি কোনো গোপন কথা বলে, তবে আপনি সেটাকে সম্মান করুন। বিশ্বাস ভঙ্গ করবেন না। একবার বিশ্বাস ভাঙ্গলে, তা জোড়া লাগানো বেশ কঠিন। 

লোক দেখানো নিজেকে সাজাবেন না

যারা উৎকৃষ্ট মানুষ হওয়ার ভান করে না। তারাই সত্যিকারের সৎ লোক। তারা আপনার ব্যাপারে সিন্ধান্ত দিবে না, কিংবা পিছন থেকে আঘাত করবে না। সচরাচর এমন মানুষের দেখা না মিললেও, তাদের অস্তিত্ব রয়েছে এরাই প্রকৃত বন্ধু্।

যারা পরিবার ও বন্ধুদেরকে অপমানিত করে, কিংবা তাদের পিছনে আজেবাজে কথা বলে, কিন্তু ঐসব মানুষের অভিনয় করে, তাদের ব্যাপারে সর্তক হন। 

খাবারের লোকমা মুখে দেয়ার সময়, একবার ভাবুন তো দুনিয়া জুড়ে কত মানুষ অনাহারে দিন কাটাচ্ছে এবং সামান্য পরিমান খাবারের উপর বেঁচে আছে। তাদের কষ্ট লাঘবের জন্য দোয়া করুন। 

সহানুভূতি ও সদয় আচরণের দিকে গোটা ‍দুনিয়া চেয়ে আছে। ঘৃণার বদলে দুনিয়াতে আরও বেশি ভালোবাসা ও মঙ্গল ছড়িয়ে দেওয়ার সংগ্রাম আত্ননিয়োগ করুন। মিথ্যার চারপাশ ছড়িয়ে থাকা সত্যকে দেখতে শিখুন। 

তর্ক করা বন্ধ করুন এবং কে ঠিক আর কে ভুল, তা প্রমাণের চেষ্টা বন্ধ করুন। দুনিয়া এমনিতেই বেশ কঠিন। উত্তমকে মেনে নিতে শিখুন এবং দয়া ও  ইতিবাচক জিনিসের বিস্তার ঘটান।

জীবন নিত্য সংগ্রামের নাম। সর্বদা ভালো করার চেষ্টা চালান। অন্যরা ভুল করলে, তাদেরকে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করবেন না। প্রজ্ঞা ও হিকমত দিয়ে তাদেরকে সাহায্য করুন।

অন্যের প্রয়োজনকে যারা প্রাধান্য দেয় তারাই [আল্লাহর ] আশীর্বাদপ্রাপ্ত লোক। যদিও তারা নিজেদের জীবন সংগ্রাম হিমশিম খাচ্ছে এবং তারা নিজেদের  ঝড় সামলাতে হয়রান। 

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.